shopner bd
সোমবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

অলিম্পিক্সে ক্রিকেটের অন্তর্ভূক্তি ঘটাতে মরিয়া আইসিসি

  ক্রিকপোস্ট ডেস্ক ১২ আগস্ট ২০২১, ১২:৫৩

ICC
সব কিছু ঠিকঠাক চললে ২০২৮ সালে লস অ্যাঞ্জেলস অলিম্পিক্সে দেখা যাবে ব্যাট-বলের লড়াই

অলিম্পিক্সে ক্রিকেট কেন নেই? এই আক্ষেপ আর হয়তো বেশিদিন বয়ে বেড়াতে হবে না সমর্থকদের। অলিম্পিক্সে ক্রিকেটকে অন্তর্ভুক্ত করাতে উঠে পড়ে লেগেছে বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ামক সংস্থা আইসিসি। সব কিছু ঠিকঠাক চললে ২০২৮ সালে লস অ্যাঞ্জেলস অলিম্পিক্সে ক্রিকেটকে অন্তর্ভুক্ত করা হতে পারে। আইসিসির তরফে রীতিমতো বিজ্ঞপ্তি জারি করে জানিয়ে দেওয়া হল একথা।

তবে ক্রিকেটের ইতিহাস বলছে, এর আগেও বাইশ গজের যুদ্ধ দেখা গিয়েছে অলিম্পিক্সে। তবে সেটা ১২১ বছর আগে। ১৯০০ সালে প্যারিসে গ্রেট ব্রিটেন ও ফ্রান্সের মধ্যে দু'দিন ব্যাপী অনুষ্ঠিত হয়েছিল ক্রিকেটের ইভেন্ট। তার পর থেকে এক শতাব্দী পেরিয়ে গেলেও অলিম্পিক্সে দেখা যায়নি ক্রিকেট। লস অ্যাঞ্জেলেসে আইসিসির দাবি মেনে ক্রিকেট ফেরানো হলে ১২৮ বছর পর ফের অলিম্পিক্সের আসরে দেখা যাবে ব্যাট-বলের লড়াই।

 

আইসিসি-র বিবৃতি
সোমবার আইসিসি-র তরফে এক বিবৃতি প্রকাশ করা হয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করা ওই বিবৃতিতে জানানো হয়েছে যে ২০২৮ সালের লস অ্যাঞ্জেলেস অলিম্পিকে ক্রিকেটের অন্তর্ভূক্তি ঘটাতে তারা মরিয়া। এর জন্য যতটুকু যা করা প্র্রয়োজন, তা তারা করবে বলেও জানিয়েছে আইসিসি। লস অ্যাঞ্জেলেস অলিম্পিকে বাইশ গজের খেল অন্তর্ভূক্ত করা যায় কিনা, তা নিয়ে ইতিমধ্যেই আইওসি-র সঙ্গে আইসিসি-র একপ্রস্ত কথা হয়েছে বলে খবর। আলোচনার পর্ব ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে বলে বিশ্বের সর্বোচ্চ ক্রিকেট নিয়ামক সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে। এ ব্যাপারে আইসিসি বিড করতে পারে বলেও জানানো হয়েছে।


আইসিসির চেয়ারম্যান গ্রেগ বার্কলে এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘আমাদের পুরো ক্রীড়া ইউনিট এই বিডের পেছনে রয়েছে এবং আমরা অলিম্পিককে ক্রিকেটের দীর্ঘ ভবিষ্যতের অংশ হিসেবে দেখছি। সারা বিশ্বে আমাদের এক বিলিয়নেরও বেশি ভক্ত রয়েছে এবং তাদের প্রায় ৯০ শতাংশ অলিম্পিকে ক্রিকেট খেলা দেখতে চায়। ক্রিকেটের স্পষ্টতই একটি শক্তিশালী এবং উৎসাহী ভক্তের ভিত্তি রয়েছে। এটি বিশেষ করে দক্ষিণ এশিয়ায়, যেখান থেকে আমাদের ভক্তদের ৭২ শতাংশ আসে। এখন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রেও ৩০ মিলিয়নের বেশি ক্রিকেট ভক্ত রয়েছে।’

আইসিসি অলিম্পিক ওয়ার্কিং গ্রুপের প্রধান হিসেবে থাকবেন ইংল্যান্ড ও ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডের চেয়ারম্যান ইয়ান হোয়াটমোর। তার সঙ্গে কাজ করবেন আইসিসির স্বাধীন পরিচালক ইন্দ্রা নুয়ি, জিম্বাবুয়ে ক্রিকেটের প্রধান তাবেঙ্গা মুকুলানি, আইসিসির সহযোগী দেশগুলোর পরিচালক ও এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের সহ-সভাপতি মাহিন্দা ভালিপুরাম ও যুক্তরাষ্ট্র ক্রিকেটের প্রধান পারাগ মারাঠে।


উল্লেখ্য, আগের দিনই বিসিসিআই সচিব জয় শাহ জানিয়েছেন, ক্রিকেটকে অলিম্পিক্স স্পোর্টসের স্বীকৃতি এনে দেওয়ার ক্ষেত্রে বিসিসিআই ও আইসিসি কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে লড়াই চালাবে। তিনি এও স্পষ্ট করেছেন যে, অলিম্পিক্সের আসরে ক্রিকেট অন্তর্ভুক্ত করা হলে বিসিসিআই অবশ্যই দল পাঠাবে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র

প্রধান সম্পাদকঃ ফজলুল বারী

কার্যালয়ঃ ১০/সি, বাসা- ৬বি, মিরপুর ১০, ঢাকা-১২১৫, বাংলাদেশ

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৯-২০২১ | ক্রিকপোস্টের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।